1. [email protected] : শেয়ারবার্তা প্রতিবেদক : শেয়ারবার্তা প্রতিবেদক
  2. [email protected] : muzahid : muzahid
  3. [email protected] : শেয়ারবার্তা : nayan শেয়ারবার্তা
  4. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
সুদ হার যাচাইয়ে ফের তদন্তে নামছে বাংলাদেশ ব্যাংক
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১২:১৫ পিএম

সুদ হার যাচাইয়ে ফের তদন্তে নামছে বাংলাদেশ ব্যাংক

  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯

বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর ঋণ ও আমানতের সুদের হার যাচাই করতে ফের তদন্তে নামছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আজ রোববার থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোয় তদন্ত শুরু করবে। তারা সব ব্যাংকে একযোগে এ তদন্ত চালাবে। এতে অধিক হারে সুদ নেয়ার প্রমাণ পাওয়া গেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বেসরকারি ব্যাংক মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স (বিএবি) ২০১৮ সালের ২ আগস্ট মেয়াদি আমানতের সুদের হার ৬ শতাংশ ও ঋণের সুদ ৯ শতাংশে নির্ধারণ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। এর বিনিময়ে তারা কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও সরকারের কাছ থেকে নানা সুবিধাও নেয়। কিন্তু প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ঋণের সুদহার ৯ শতাংশে নামিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়েছে বেশির ভাগ ব্যাংক। এ কারণে মে মাসে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এতে বলা হয়েছে, যেসব ব্যাংক ঋণের সুদ ৯ শতাংশে আনতে ব্যর্থ হয়েছে, তারা সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান থেকে কোনো আমানত পাবে না। একই সঙ্গে এসব প্রতিষ্ঠানের আমানত কোনো ব্যাংকেই ৬ শতাংশের বেশি সুদে রাখা যাবে না।

ব্যাংকগুলোর ঋণের সুদের হার কমানোর জন্যই মূলত এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তারপরও ঋণের সুদের হার কমেনি। এ কারণে বাংলাদেশ ব্যাংক এখন খতিয়ে দেখবে কোনো ব্যাংক বা প্রতিষ্ঠান সরকারি নির্দেশ ভঙ্গ করে চড়া সুদে আমানত নিয়েছে কি না। একই সঙ্গে তারা ঋণের সুদের হারের বিষয়টিও দেখবে।

সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান থেকে কোনো ব্যাংক ৬ শতাংশের বেশি সুদহারে আমানত নিয়েছে কি না, তদন্তে তা খতিয়ে দেখা হবে। যারা ৬ শতাংশের বেশি সুদে আমানত নিয়েছে, সেসব প্রতিষ্ঠান ও ব্যাংকের তালিকা করা হবে।

অন্যদিকে, ঋণের সুদের হারের ক্ষেত্রেও এসব তথ্য সংগ্রহ করা হবে। প্রতিশ্রুতি ছিল ঋণের সুদের হার হবে ৯ শতাংশ। যেসব ব্যাংক ৯ শতাংশের বেশি সুদে ঋণ দিয়েছে এবং নিয়েছে, তাদের তালিকা করা হবে। একই সঙ্গে কী পরিমাণ ঋণ নিয়েছে, সুদের হার কত, কোন খাতে নেয়া হয়েছে- এসব তথ্যও যাচাই করা হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তদন্তে ২৩ মে থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তথ্য খতিয়ে দেখা হবে। ব্যাংক পরিদর্শনের চারটি বিভাগ থেকে সরকারি, বেসরকারি ও বিদেশি ব্যাংকগুলোয় এই তদন্ত পরিচালিত হবে।

এর আগে গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে পরিচালিত কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক তদন্তে দেখা যায়, ব্যাংক ঋণের সুদের হার ৯ শতাংশের মধ্যে নামিয়ে আনার বিষয়ে কথা রাখেনি বেসরকারি খাতের ৩৮টি ব্যাংক। এই খাতের মাত্র দুটি ব্যাংক ঋণের সুদহার ৯ শতাংশে নামিয়েছে। ছয় মাস মেয়াদি আমানতের সুদের হার ৬ শতাংশের মধ্যে নামিয়ে আনার ব্যাপারেও প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি বেসরকারি খাতের ১৪টি ব্যাংক। তিন মাস মেয়াদি আমানতের মুনাফার হার ৬ শতাংশে নামানোর কথা রাখেনি বেসরকারি খাতের ২ ব্যাংক।

শেয়ারবার্তা / মিলন

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:

ভালো লাগলে শেয়ার করবেন...

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ