1. [email protected] : শেয়ারবার্তা প্রতিবেদক : শেয়ারবার্তা প্রতিবেদক
  2. [email protected] : muzahid : muzahid
  3. [email protected] : শেয়ারবার্তা : nayan শেয়ারবার্তা
  4. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
শেয়াবাজার থেকে ৪০ ব্যাংক মুনাফা তুলেছে ৮৮৮ কোটি টাকা
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:৩২ পিএম

শেয়াবাজার থেকে ৪০ ব্যাংক মুনাফা তুলেছে ৮৮৮ কোটি টাকা

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৭ মে, ২০২২
largest-banks

২০২১ সালে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করে ৪০ ব্যাংক ৮৮৮ কোটি টাকা মুনাফা তুলেছে। তবে দুটি ব্যাংক লোকসানের সম্মুখীন হয়েছে। শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আইএফআইসি ব্যাংক শেয়ারবাজার থেকে বছরের সর্বোচ্চ মুনাফা তুলেছে। এই সময়ে ব্যাংকগুলোর বিও অ্যাকাউন্টে ক্যাশ অর্থ জমা ছিল ৩১৩ কোটি টাকা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৪২টি ব্যাংক তাদের নিজস্ব পোর্টফোলিওর মাধ্যমে ৭০৮৬ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোকে ঋণ দিয়েছে ৪৯৬৬ কোটি টাকা। এছাড়া, ব্যাংকগুলো বিভিন্ন বন্ডে ৯৫০ কোটি টাকা এবং মিউচুয়াল ফান্ডে ১৮৪৬ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শেয়াবাজারে আইন অনুযায়ী ৪২টি ব্যাংক মোট ২২ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। বাজার মূল্যে ফেব্রুয়ারি মাসে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগ ছিল ২৩ হাজার কোটি টাকা। এক মাসের ব্যবধানে মার্চ মাসে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগ হ্রাস পেয়েছে ৪.৩৯ শতাংশ।

অন্যদিকে, ওই সময়ে শেয়ারবাজারের জন্য ব্যাংকগুলোর এক্সপোজার ছিল মোট ১৪ হাজার কোটি টাকা। ১০ মার্চ পর্যন্ত ব্যাংকগুলোর মূল মূলধন ছিল ৭৮ হাজার ৮০১ কোটি টাকা, যা ফেব্রুয়ারি শেষে ছিল ৮২ হাজার ১২৯ কোটি টাকার বেশি।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক, মেঘনা ব্যাংক এবং সীমান্ত ব্যাংকের শেয়ারবাজারের এক্সপোজার ১০ শতাংশের নিচে রয়েছে। একই সাথে পাঁচটি ব্যাংক সিটিজেন ব্যাংক, হাবিব ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া এবং উরি ব্যাংকের শেয়ারবাজার কোন এক্সপোজার নেই।

এর আগে ২০২০ সালের ৯ মার্চ ব্যাংকগুলোকে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে সফট ঋণ নিয়ে ২০০ কোটি টাকার বিশেষ তহবিল গঠনের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এই ফান্ডের মেয়াদ ২০২৫ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বৈধ থাকবে এবং ব্যাংকগুলো ২০২৫ সালের ১৩ জানুয়ারী পর্যন্ত ঋণের সুবিধা নিতে পারবে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এদিকে, যেসকল ব্যংকের ২৫ শতাংশের নিচে শেয়ারবাজারে এক্সপোজার রয়েছে এমন ব্যাংকগুলোকে নতুন বিনিয়োগের মাধ্যমে তাদের এক্সপোজার আরও ২ শতাংশ বাড়ানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া, এখনও যেসব ব্যংক বিশেষ তহবিল গঠন করেনি, তাদেরকে তহবিল গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২১ সালে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের বিপরীতে সমস্ত ব্যাংক মিলে ৪৩১ কোটি টাকার ফান্ড তৈরি করেছে।

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:

ভালো লাগলে শেয়ার করবেন...

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
Dse

টানা তিন কার্যদিবস পতন

  • ৩১ জানুয়ারী ২০২৩
  • মুনাফায় ফিরেছে রহিমা ফুড

  • ৩০ জানুয়ারী ২০২৩