1. [email protected] : শেয়ারবার্তা প্রতিবেদক : শেয়ারবার্তা প্রতিবেদক
  2. [email protected] : muzahid : muzahid
  3. [email protected] : শেয়ারবার্তা : nayan শেয়ারবার্তা
  4. [email protected] : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
অবৈধভাবে ডিএসইর গাড়ি ব্যবহার করছেন বিএসইসির কমিশনার
সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৪২ এএম

অবৈধভাবে ডিএসইর গাড়ি ব্যবহার করছেন বিএসইসির কমিশনার

  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন হওয়ার প্রথম ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হিসেবে নিয়োগ পান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক স্বপন কুমার বালা। সাড়ে তিন বছর আগে তিনি ডিএসইর এমডির পদ ছাড়েন। বর্তমানে আছেন পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার হিসেবে। কিন্তু এখনও তিনি এবং তার পরিবারের সদস্যরা ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহার করছেন ডিএসইর গাড়ি।

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে স্টক এক্সচেঞ্জ থেকে নেয়া তার এমন সুবিধা গ্রহণকে ‘অবৈধ’ ও ‘অনৈতিক’ বলছেন বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, বিএসইসির কমিশনার বিএসইসি থেকেই গাড়ির সুবিধা পাওয়ার কথা। তিনি বর্তমানে ডিএসইতে নেই, তাই তিনি কিছুতেই ডিএসইর গাড়ি ব্যবহার করতে পারেন না। তার পরিবারের সদস্যদের জন্যও তিনি নৈতিকভাবে ডিএসইর গাড়ি নিতে পারেন না।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, স্বপন কুমার বালা ২০১৩ সালের ১৫ এপ্রিল তিন বছরের জন্য ডিএসইর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। একই বছরের ৩ এপ্রিল নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি তার নিয়োগ অনুমোদন করে। তবে ডিমিউচ্যুয়ালাইজড স্টক এক্সচেঞ্জ রূপান্তরিত হওয়ার পর সিইওর পদটি এমডিতে রূপান্তরিত হলে বালাও ডিএসইর এমডি হন।

তিন বছর দায়িত্ব পালনের পর ডিএসইর এমডি পদে স্বপন কুমার বালার মেয়াদ শেষ হয় ২০১৬ সালের ১২ এপ্রিল। এরপর একই বছরের ১৮ এপ্রিল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে বিএসইসির কমিশনার হিসেবে তার চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের আদেশ জারি হয়। পরের দিনই তিনি বিএসইসির কমিশনার হিসেবে কাজে যোগ দেন।

সূত্র জানায়, ডিএসই ছাড়ার আগেই স্বপন কুমার বালা প্রতিষ্ঠানটিতে একটি বিতর্কিত পদোন্নতি দিয়ে যান। এতে তার আস্থাভাজনরা পদোন্নতি পেলেও বঞ্চিত হন যোগ্য অনেক কর্মকর্তা। ফলে ডিএসইর কর্মকর্তাদের একটি অংশের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। কিন্তু স্বপন কুমার বালা বিএসইসির কমিশনার হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় কেউ এ বিষয়ে প্রতিবাদ করার সাহস পাননি।

অভিযোগ পাওয়া গেছে, ডিএসই ছেড়ে বিএসইসিতে যোগ দিলেও স্বপন কুমার বালা, তার স্ত্রী ও মেয়ের ব্যক্তিগত প্রয়োজনে প্রায়ই ডিএসইর গাড়ি সুবিধা নিয়ে থাকেন। বিএসইসিতে যোগদানের পর থেকে তিনি এ অনৈতিক সুবিধা নিচ্ছেন।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও বিএসইসির সাবেক চেয়ারম্যান এ বি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, ‘কমিশনার হিসেবে তিনি তো বিএসইসি থেকে গাড়ি পাওয়ার কথা। এছাড়া তিনি বর্তমানে ডিএসইতে নেই। তাহলে তার পরিবারের সদস্যদের জন্য কেন ডিএসইর গাড়ি নেবেন? বিএসইসির কমিশনার পদে থেকে পরিবারের জন্য ডিএসইর গাড়ি ব্যবহার সম্পূর্ণ অনৈতিক।’

ডিএসইর এক সদস্য নাম প্রকাশ না করে বলেন, বিএসইসির কমিশনার স্বপন কুমার বালা তার পরিবারের সদস্যদের জন্য প্রায়ই ডিএসইর গাড়ি নেন, এমন কথা আমরাও শুনেছি। কিন্তু তিনি নিয়ন্ত্রক সংস্থার কমিশনার, এ কারণে কেউ তাকে কিছু বলেন না। আর তিনি গাড়ি চাইলে কেউ না-ও করতে পারেন না।

শেয়ারবার্তা / আনিস

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:

ভালো লাগলে শেয়ার করবেন...

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
DBH

ইজিএম করবে ডিবিএইচ

  • ১ অক্টোবর ২০২২